Ki karachena 37 hajar mahila: কী করেছেন ৩৭ হাজার মহিলা? ইতিহাস গড়ার আয়োজন, দেখুন কী অলৌকিক ঘটনা ঘটলো

Ki karachena 37 hajar mahila: গত ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর, গুজরাটের দ্বারকায় অনুষ্ঠিত মহারাস উৎসবে ৩৭ হাজারেরও বেশি মহিলা অংশ নিয়ে ইতিহাস গড়েছেন। এই মহারাস উৎসবটি প্রতিবছর ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হয়। এটি একটি হিন্দু ধর্মীয় উৎসব যাতে শ্রীকৃষ্ণের সাথে রাসলীলা বা নৃত্য-গীতের মাধ্যমে ভক্তরা তাঁর প্রেমের প্রকাশ করেন।

এই বছরের মহারাস উৎসবে অংশ নেওয়া মহিলারা সকলেই লাল শাড়ি পরিধান করেছিলেন। তাঁরা সকলেই একসঙ্গে গোল হয়ে ঘুরতে ঘুরতে নাচছিলেন। এই দৃশ্যটি ছিল এক অপূর্ব দৃশ্য।

এই মহারাস উৎসবের আয়োজকদের মতে, এবারের মহারাস উৎসবে এত বেশি মহিলা অংশগ্রহণের কারণ হল নারীদের ক্ষমতায়ন। তাঁরা মনে করেন যে, এই উৎসবের মাধ্যমে নারীরা তাদের সামাজিক ও ধর্মীয় অধিকারের কথা তুলে ধরতে চাইছেন।

এই মহারাস উৎসবটি ভারতের নারীদের জন্য একটি গৌরবময় দিন। এই উৎসবের মাধ্যমে নারীরা তাদের শক্তি ও সম্প্রীতির বার্তা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছেন।

এখানে কিছু নির্দিষ্ট অংশগুলির ব্যাখ্যা দেওয়া হল:

  • “তৈরি হল ইতিহাস” – এই বাক্যটি দ্বারা বোঝানো হয়েছে যে, ৩৭ হাজার মহিলা একসঙ্গে মহারাসে অংশগ্রহণের ঘটনাটি একটি ইতিহাস গড়া ঘটনা। এর আগে এত বেশি মহিলা একসঙ্গে এই উৎসবে অংশগ্রহণ করেননি।
  • “লাল শাড়িতে ঘুরলেন” – এই বাক্যটি দ্বারা বোঝানো হয়েছে যে, মহিলারা সকলেই লাল শাড়ি পরিধান করেছিলেন। লাল রঙটি হিন্দুধর্মে পবিত্র রঙ হিসেবে বিবেচিত হয়।
  • “গোল হয়ে ঘুরতে ঘুরতে নাচছিলেন” – এই বাক্যটি দ্বারা বোঝানো হয়েছে যে, মহিলারা সকলেই একসঙ্গে গোল হয়ে ঘুরতে ঘুরতে নাচছিলেন। এই নাচটি রাসলীলা বা নৃত্য-গীতের মাধ্যমে শ্রীকৃষ্ণের সাথে ভক্তদের প্রেমের প্রকাশ।
  • “নারীদের ক্ষমতায়ন” – এই বাক্যটি দ্বারা বোঝানো হয়েছে যে, এই মহারাস উৎসবের মাধ্যমে নারীরা তাদের সামাজিক ও ধর্মীয় অধিকারের কথা তুলে ধরতে চাইছেন। তারা মনে করেন যে, এই উৎসবের মাধ্যমে তারা তাদের ক্ষমতায়ন ঘটাতে পারবেন।
HomeClick Here
Google NewsFollow
Telegram GroupJoin Us

Hello

Leave a comment