E Shram Card: নতুন কার্ড দিচ্ছে মোদি সরকার কেউ পাবে ৩ হাজার কেউ পাবে 5000 টাকা আবেদন করার নিয়ম জেনে নিন

E Shram Card: এখন আমাদের দেশে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দলিল হিসেবে উভয়ই প্রস্তুত হয়েছে। বর্তমানে আধার কার্ড এবং প্যান কার্ড হল দুটি প্রধান প্রমাণপত্র, যেগুলি একজন নাগরিকের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

এই দুই কার্ডের পাশাপাশি, নতুন নতুন দলিল প্রণোদন করতে ই শ্রম কার্ড এখন একটি চরম জরুরি দলিল হিসেবে অভিজ্ঞান করা হচ্ছে।

এই নতুন প্রযুক্তির প্রবর্তনে সহানুভূতির দিকে ধারণা দেওয়া হয়েছে এবং লোকসভা ভোট 2024 এমন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনায় পূর্বাভাস হয়েছে যে, এটি দেশের গরীব মানুষের জন্য একটি পৌরসত্ত্বের নতুন দিকে নজর দেয়া হচ্ছে।

E Shram Card Online Apply Process

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ইশ্রম কার্ড যোজনা দিয়ে প্রত্যেক গরিবের ব্যাংক একাউন্টে টাকা বিতরণ করছেন। প্রতি মাসে ৩০০০ টাকা প্রাপ্ত হচ্ছে আবেদনকারীদের। এটা পেতে কোন খাতরকরি করতে হবে না, শুধু একবার আবেদন করলেই প্রতিমাসে পেনশন পাওয়া যাবে।

একটি নথির মাধ্যমে মাত্র প্রমাণ করতে হবে। আপনিও যদি ঘরে বসে প্রতি মাসে ৩০০০ টাকা পেনশন পেতে চান,তাহলে দেরি না করে এখানে দেখুন।

E Shram Card

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে চালু হয়েছে বিভিন্ন প্রকল্প, যেগুলির মধ্যে একটি হল E Shram Card। এই কার্ড দিয়ে দেশের অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করা লোকদের, যেমন কর্মী বা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা, কেন্দ্রীয় সরকার পেনশন দিচ্ছে। ব্যক্তি যদি ৬০ বছরের বৃদ্ধ হয়, তাদের জন্য পেনশনের সুবিধা রয়েছে।

এখনও পর্যন্ত দেশের ২০ কোটি মানুষ E Shram Card নিয়েছে। এর মধ্যে ২ কোটি মানুষ তাদের অন্তর্ভুক্ত পরিষেবা গুলি ব্যবহার করতে শুরু করেছে। এবং আসছে আরও বেশি মানুষ, যারা এই E Shram Card এর সুবিধা নেতে চান। আপনি যদি এইখানে আপনার নাম নথিভুক্ত করতে চান, তবে আপনাকে পিছনে থাকতে হবেন না।

E Shram Card  2024
E Shram Card 2024

E Shram Card এ কি কি সুবিধা পাবেন

  • E Shram Card এর মাধ্যমে ৬০ বছর বয়স পার হলে একজন আবেদনকারী প্রতি মাসে নগদ ৩০০০ টাকা পেনশন লাভ করবেন।
  • এই কার্ডটি সারা ভারতে বৈধ।
  • এই কার্ডের সাহায্যে আপনি প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বীমা যোজনা (PMSBY) লাভ নিতে পারবেন। প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বীমা যোজনা দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু কিংবা পূর্ণাঙ্গ বিকলাঙ্গ হলে ২ লক্ষ টাকা এবং আংশিক বিকলাঙ্গ হলে ১ লক্ষ টাকা পাবেন। এর জন্য আপনাকে প্রতি বছর 12 টাকা দিতে হবে এবং আপনার লিঙ্ক করা ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হবে।
  • যদি একজন আবেদনকারীর পাকা বাড়ি বা বাসস্থান না থাকে তবে সেটি তৈরির জন্যও টাকা প্রদান করবে কেন্দ্রীয় সরকার এর অধীনে।
  • এর পাশাপাশি যদি কোনো গর্ভবতী মহিলা কর্মচারীর কাজ করতে সক্ষম না হন, তাহলে সরকার তার এবং তার সন্তানদের জন্য সম্পূর্ন ব্যবস্থা করবে।
  • E Shram Card আবেদনকারীরা তাদের সন্তানদের পড়াশোনার জন্যেও অর্থ সাহায্য পাবেন সরকারের তরফ থেকে।

E Shram Card আবেদন করার যোগ্যতা

  1. শুধুমাত্র অসংগঠিত ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্তকর্মীরাই এর সুবিধা নিতে পারেন।
  2. যারা কোন রকম আয়কর (Income Tax) দেন না এমন ব্যাক্তিরাই এই প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন।
  3. আবেদনকারী EPFO (Employees Provident Fund Organization) এর মেম্বার হলে এই কার্ডের সুবিধা নিতে পারবেন না।
  4. মহিলা ও পুরুষ উড়য়েই আবেদনের যোগ্য।
  5. সর্বনিম্ন ১৬ থেকে সর্বোচ্চ ৫৯ বছর বয়সী ব্যক্তিরা আবেদন করতে পারেন।

E Shram Card আবেদনের প্রয়োজনীয় নথিপত্র

  • আধার কার্ড (Aadhaar Card).
  • এক কপি সাম্প্রতিক রঙিন পাসপোর্ট সাইজ ফটো।
  • PAN Card যদি থাকে।
  • ব্যাংক একাউন্টের বিবরন।
  • মোবাইল নম্বর।

E Shram Card আবেদন পদ্ধতি

  1. তারপর রেজিস্ট্রেশনের লিংক পেজের ডান পাশে থাকবে।
  2. তারপর ‘রেজিস্ট্রেশন অন ই-লেবার’ এ ক্লিক করুন।
  3. এর পরে আধার লিঙ্কযুক্ত মোবাইল নম্বর লিখতে হবে এবং ক্যাপচা লিখতে হবে।
  4. তারপর Send OTP এ ক্লিক করুন।
  5. এর পরে ওটিপি লিখুন এবং তারপরে ই-শ্রমের জন্য নিবন্ধন ফর্ম খুলবে।
  6. তারপর আপনাকে আপনার ব্যক্তিগত, শিক্ষাগত এবং ব্যাংকের বিবরণ লিখতে হবে।
  7. তাহলে আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ হবে।
E Shram Card
E Shram Card

এই ই শ্রম কার্ড দেশের সকল রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত প্রদেশের যে কোন অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মীরা তৈরি করতে পারবেন। আর এই কারণের জন্যই লোকসভা নির্বাচনের আগে ভারত সরকারের (Government Of India) তরফে সকলকে এই কার্ডটি তৈরি করার জন্য বলা হচ্ছে। আর ওপরে উল্লেখিত পদ্ধতি অনুসারে আপনারা খুব সহজ পদ্ধতিতে এই কাজটি সম্পন্ন করতে পারবেন।

HomeClick Here
Google NewsFollow
Telegram GroupJoin Us

Hello

Leave a comment