ধনতেরাস: গাড়ি বিক্রির রেকর্ড ভেঙে যাবে এবারে, SUV-এর 90 শতাংশ শেয়ার

FADA সভাপতি বলেন, মোট বুকিংয়ে শহুরে চাহিদা ৬০ শতাংশ অবদান রাখে(car)। গ্রামীণ এলাকা থেকেও 40 শতাংশ বুকিং পাওয়া গেছে, যা প্রত্যাশার চেয়ে কম। তিনি বলেন, ভালো ইনভেন্টরি থাকায় এ বছর যানবাহনের অপেক্ষমাণ চার-ছয় মাস কমেছে।

এই বছরের ধনতেরাস গাড়ির বুকিং এবং খুচরা বিক্রয়ের ক্ষেত্রে দুর্দান্ত হতে চলেছে। সারাদেশের মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের ব্যাপক ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যানবাহনের প্রতিটি অংশ ইতিবাচক বৃদ্ধি দেখাচ্ছে। নবরাত্রির মতো এবার ধনতেরাসেও ভাঙতে পারে গাড়ি বিক্রির রেকর্ড।

ফেডারেশন অফ অটোমোবাইল ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (এফএডিএ) সভাপতি মনীশ রাজ সিংহানিয়া বলেছেন যে এসইউভি (স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকেল) এর প্রতি ক্রমবর্ধমান আকর্ষণের কারণে এই ধনতেরাস অটোমোবাইল শিল্পের জন্য বিশেষ হবে। যানবাহনের রেকর্ড বুকিং করা হয়েছে। মোট বুকিংয়ে SUV-এর অংশীদারিত্ব 90 শতাংশ৷ তবে হ্যাচব্যাক এবং সেডান গাড়ির বুকিং কমেছে।

FADA সভাপতি বলেন, মোট বুকিংয়ে শহুরে চাহিদা ৬০ শতাংশ অবদান রাখে। গ্রামীণ এলাকা থেকেও 40 শতাংশ বুকিং পাওয়া গেছে, যা প্রত্যাশার চেয়ে কম। তিনি বলেন, ভালো ইনভেন্টরি থাকায় এ বছর যানবাহনের অপেক্ষমাণ চার-ছয় মাস কমেছে। গত বছর তালিকার অভাবে জনগণকে যানবাহন সরবরাহের জন্য দুই বছর অপেক্ষা করতে হয়েছিল।

টু হুইলারও চলছে(car)

দু-চাকার গাড়ির বিক্রিও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। FADA বলছে যে এখন পর্যন্ত বুকিং এর পরিসংখ্যান ভাল হয়েছে। ধনতেরাসে টু-হুইলার বিক্রির প্রভাব নভেম্বরের গাড়ি বিক্রির পরিসংখ্যানে ইতিবাচক হবে।

ইভি: চাহিদা আছে, কিন্তু এটাকে সাশ্রয়ী করতে হবে

বৈদ্যুতিক গাড়ির (ই-বাহন) চাহিদা ভালো দেখায়, কিন্তু বৃদ্ধি স্থবির। বৈদ্যুতিক যাত্রীবাহী যানের অনুপ্রবেশ দুই শতাংশ এবং ই-টু-হুইলারের পাঁচ শতাংশে স্থিতিশীল। ইভির নাগাল বাড়ানোর জন্য এগুলোকে সাশ্রয়ী করতে হবে।

গত বছরের চেয়ে বেশি অফার

গত ধনতেরসের চেয়ে এবার বেশি অফার এবং ফিনান্স স্কিম পাওয়া যাচ্ছে। হ্যাচব্যাক-সেডান গাড়িতে 5-10 শতাংশ ছাড় পাওয়া যাচ্ছে। SUV-তে ছাড় কম। এক্সচেঞ্জ বোনাস এবং কর্পোরেট ডিসকাউন্টের মতো আরও অনেক অফারও পাওয়া যায়। -মণীশ রাজ সিঙ্গানিয়া, সভাপতি, এফএডিএ

CAT-এর দাবি, খুচরো ব্যবসা হবে ২ লাখ কোটি টাকা

কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (ক্যাট) এর জাতীয় সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ খান্ডেলওয়াল বলেছেন যে ধনতেরাস-দীপাবলির জন্য সজ্জিত বাজারগুলিতে প্রত্যাশার চেয়ে বেশি ভিড় দেখা যাচ্ছে। পরিবেশটা ভালো লাগছে। এবার, সারা দেশে খুচরা বাজারে টার্নওভার প্রায় 2 লক্ষ কোটি টাকা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। গত বছর, ধনতেরাস-দীপাবলিতে খুচরা বাজারে 1.50 লক্ষ কোটি টাকার টার্নওভার হয়েছিল।

car
car

ধনতেরাসে ৫০,০০০ কোটি টাকার কেনা-বেচা হবে

শুধুমাত্র ধনতেরাসেই সারা দেশে খুচরা বাজারে ৫০,০০০ কোটি টাকার ব্যবসা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সোনার গহনা এতে 3,500 কোটি টাকা অবদান রাখবে। এর পাশাপাশি, 1,000 কোটি টাকার পাত্র এবং 1,000 কোটি টাকার ইলেকট্রনিক্স পণ্য বিক্রি হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

চীনের ক্ষতি হয়েছে ১ লাখ কোটি টাকা

খান্ডেলওয়াল বলেন, স্বনির্ভর ভারত এবং ভোকাল অফ লোকাল ক্যাম্পেইন গ্রাহকদের উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। এবার ভারতীয় ব্যবসায়ীরা চীন থেকে ধনতেরাস-দীপাবলি সংক্রান্ত কোনো সামগ্রী আমদানি করেননি। এতে চীনের ক্ষতি হয়েছে ১ লাখ কোটি টাকা। গত বছরও প্রতিবেশী দেশটির 75,000 কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

ইলেকট্রনিক্স পণ্যে ৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশিত: রাই

রিটেইলার্স অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার (আরএআই) সিইও কুমার রাজাগোপালন বলেছেন যে গত বছরের তুলনায় এবার কম উত্সাহ রয়েছে। তা সত্ত্বেও গত বছরের তুলনায় খুচরা বিক্রি বাড়তে পারে ৫-৬ শতাংশ। তবে 10-12 শতাংশ প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশিত ছিল। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত বুকিং ও অনুসন্ধানের পরিসংখ্যান দেখলে ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বিক্রি ৬ শতাংশ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পাদুকাও বাড়তে পারে ৫ শতাংশ। তবে জামাকাপড় কেনার ব্যাপারে উৎসাহ কম বলে মনে হচ্ছে।

রাজাগোপালন বলেন, গত বছর করোনার পর প্রথমবারের মতো উৎসবের সময় মানুষ কেনাকাটা করতে বেরিয়েছিল। 2022 সালে, দীপাবলি ঘিরে বিয়ের মরসুম শুরু হয়েছিল। তাই গত ধনতেরাস-দীপাবলিতে মানুষ প্রচুর কেনাকাটা করেছিল। এবার বিয়ের মৌসুম শুরু হচ্ছে দেরিতে।

HomeClick Here
Google NewsFollow
Telegram GroupJoin Us

Hello

Leave a comment